dainik shomoy | logo

২২শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ৬ই আগস্ট, ২০২০ ইং

কালীগঞ্জে চাকু দিয়ে হত্যার চেষ্টা গ্রামপুলিশের সাহসিকতায় এ যাত্রায় বেঁচে গেল আব্দুল্লাহ

প্রকাশিত : এপ্রিল ১০, ২০২০, ২১:১৫

কালীগঞ্জে চাকু দিয়ে হত্যার চেষ্টা গ্রামপুলিশের সাহসিকতায়  এ যাত্রায়  বেঁচে গেল আব্দুল্লাহ

জি এম মামুন নিজস্ব প্রতিনিধি : কালিগঞ্জ উপজেলার ধলবাড়িয়া ইউনিয়নের তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে। দিবালোকে স্প্রিংএর চাকু দিয়ে আক্রমণ করার সময় গ্রাম পুলিশের সাহসিকতা ভূমিকা রাখায় অল্পের জন্য বেঁচে গেল। উচ্ছে পাড়া গ্রামের মোঃ ফজর আলী সরদারের পুত্র মোঃ আব্দুল্লাহ সরদার। এই ঘটনায় কালিগঞ্জ থানায় বাদী হয়ে অভিযোগ দায়ের করেছেন মোঃ আব্দুল্লাহ সরদার।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায় ধলবাড়িয়া ইউনিয়নের এর উচ্ছেপাড়া গ্রামের আহমেদ গাজীর পুত্র হাফিজুর রহমান। এলাকায় প্রভাব খাটিয়ে অস্ত্রশস্ত্র স্প্রিংএর চাকু দেখাইয়া বিভিন্ন সময় মানুষকে হয়রানি ও খুন-জখমের হুমকি দিতে থাকে।

গত ১০/০৪/২০২০ তারিখে শুক্রবার হাফিজুর রহমান তার কৃষি জমিতে ইরি ব্লকে ধান রোপণরত অবস্থায় উচ্ছে পাড়া গ্রামের ইব্রাহিমের গাইনের ছাগলে ধান খাওয়াকে কেন্দ্র করে বাক-বি দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয়। এবং আনুমানিক সকাল ১০.৩০ মিনিটে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে সালিশ শুরু হয়। সালিশে দুই পক্ষের মীমাংসা হয়ে যাওয়ার পরপরই।

আহম্মদ গাজীর পুত্র হাফিজুর রহমান, মোঃ ফজর আলী পুত্র আব্দুল্লাহ সরদার কে বিভিন্ন অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ সহ হুমকি দিতে থাকে। একপর্যায়ে আব্দুল্লাহ সরদার, হাফিজুর কে প্রতিবাদ করায় হাফিজুর রহমান তার নিজের প্যান্টের পকেট থেকে স্প্রিং এর চাকু বাহির করে আব্দুল্লার পেটে ঢুকায় দিতে যায়। হঠাৎ গ্রাম পুলিশ রেজাউল ইসলাম তার সাহসিকতার পরিচয় দিয়ে হাফিজুর কে জাপটে ধরে।

কিছুক্ষন ধস্তা-ধস্তি মধ্য দিয়ে গ্রাম পুলিশ রেজাউলের মুখে ঘুষি ও শরিলে বিভিন্ন স্থানে চড় লাথি মেরে তার পরিহিত সরকারি পোশাক ছিড়িয়া হাফিজুর পালিয়ে যায়।
এই ঘটনায় কালীগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।




সম্পাদক ও প্রকাশক :

অফিস লোকেশন:

ফোন:

ই-মেইল:

Copyright  @ JagoBarta.  All right reserved. Website Hosted by www.bdwebs.com