দুপুর ১:৩০ সোমবার ১৯শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং

ব্রেকিং নিউজ:


কালিগঞ্জের কৃষ্ণনগরের চেয়ারম্যান মোশাররাফ হত্যার প্রধান আসামী জলিল গনপিটুনীতে নিহত

নিউজ ডেস্ক | দৈনিক সময়
আপডেট : সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৮ , ৫:৩৪ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : আর্ন্তজাতিক,কালিগঞ্জ,খুলনা,চট্রগ্রাম,জাতীয়,রাজনীতি,শ্যামনগর
পোস্টটি শেয়ার করুন

আক্তাবুর জ্জামান ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি, দৈনিক সময় : কালিগঞ্জের কুখ্যাত সন্ত্রাসী, চেয়ারম্যান মোশারাফসহ একাধীক হত্যা মামলার আসামী আব্দুল জলিল গনপিটুনীতে নিহত হয়েছে। ঘটনাটি শনিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) রাত ৯ টা ১৫ মিনিটে উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা বাজারে ইউনিয়ন যুবলীগ কার্যালয়ের সামনেই ঘটেছে। সে কালিগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের শংকরপুর গ্রামের ইয়াকুব আলী গাইনের পুত্র। নিহত চেয়ারম্যানের বড় কন্যা সাফিয়া পারভীন বাদি হয়ে গত ৯ সেপ্টেম্বর আব্দুল জলিল গাইন কে প্রধান আসামী করে ৯ জনের নামে কালিগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করে মামলা নং- ৬। এই মামলায় অজ্ঞাত আরো ২০ জনকে রাখা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে মামলার প্রধান আসামী জলিল গাইন পালাতক ছিলো। ইতি মধ্যে কালিগঞ্জ থানা হত্য ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ৫ জনকে আটক করে। এর মধ্যে মোজ্জাফার বিশ^াস, খোকন ঢালি ও রনজিৎ সাতক্ষীরা আমলী আদালত পেয়ে স্বিকারোক্তি মূলক জবান বন্দি দিয়েছে। চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেনকে হত্যার পর জলিল ডাকাত টপ অব দ্যা ডিস্ট্রিকে রুপ নেয়। পুলিশ তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রেখেছে। কালিগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত মোহাম্মদ রাজিব হোসেন জানান গত শুক্রবার গাজীপুর এলাকা থেকে আসামী আব্দুল জলিল গাইনকে পুলিশ আটক করে কালিগঞ্জ থানায় প্রেরন করে। থানায় জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাতে তাকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধারের জন্য কৃষ্ণনগরে যে এলাকায় ঘটনা ঘটেছিলো সেখানে নিয়ে গেলে হাজার হাজার জনতা উপস্থিত হয়ে পুলিশের কাছ থেকে তাকে নিয়ে গনপিটুনি দেয়। গনপিটুনিতে জলিল গাইন নিহত হয়েছে বলে পুলিশ জানায়। উল্লেখ্য চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেনকে গত ৮ সেপ্টেম্বর রাত ১০ টা ৪৫ মিঃ কালিগঞ্জের কৃষ্ণনগর বাজারে যুবলীগ কার্যালয়ের সামনে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যা করে সে। পুলিশ তাকে খুজছে কিন্তু জনশ্রুতি আছে জলিল ডাকাত পুলিশের খাঁচায় বন্দী আছে। পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানাগেছে, মঙ্গলবার সকালে মোশাররফ হত্যায় ব্যবহৃত জলিলের মালিকানাধীন একটি এ্যাপাচী মোটরসাইকেল, দুটি চাইনিজ কুড়াল, একটি রামদা, কালো ব্যাগে তার ব্যবহৃত প্যান্ট, শার্ট, টি শার্ট শ্যামনগরের কাশিমাড়ি ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে তার ছোট মামার বাড়ী থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। অন্যদিকে মামলার অপর আসামি মোজাফফর বিশ্বাস মঙ্গলবার(১১ সেপ্টেম্বর) ও অপর দুই আসামী খোকন ঢালী (জলিলের ছোট মামা) এবং রনজিৎ মন্ডল বুধবার (১২ সেপ্টেম্বর) সাতক্ষীরার আমলি আদালত-১ এর বিচারক হারুনার রশীদের কাছে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।