দুপুর ১:২৯ সোমবার ১৯শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং

ব্রেকিং নিউজ:


আশাশুনিতে ভূ-গর্ভ থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের মহোৎসব চলছে

নিউজ ডেস্ক | দৈনিক সময়
আপডেট : অক্টোবর ৩১, ২০১৮ , ১২:০৬ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : আশাশুনি
পোস্টটি শেয়ার করুন

বিশেষ প্রতিনিধি, দৈনিক সময়: আশাশুনির উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ভূ-গর্ভ থেকে বালু উত্তোলন যেন কোন ভাবেই থামানো যাচ্ছেনা। প্রশাসনের কড়া নিষেধাজ্ঞা থাকা শর্তেও বাংলাদেশ সরকারের বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন, ২০১০ এর ৬২নং ধারাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে চলছে ভূ-গর্ভ থেকে বালু উত্তোলনের মহোৎসব। সরজমিন ঘূরে জানাগেছে, আশাশুনির শোভনালী ইউনিয়নের কোনার বাঁকড়া এলাকায় প্রশাসনের নাম ভাঙ্গিয়ে দিনে দুপুরে মৎস্য ঘেরে ড্রেজার মেশিন দিয়ে ভূ-গর্ভ থেকে দেদারছে বালু উত্তোলন করছেন এবং তা চড়া দাবে বিক্রিও করছেন বাঁকড়া গ্রামের অমেদ আলী গাজীর পুত্র নূর মোহাম্মদ সহ তার সহযোগীরা। বিষয়টি বন্দ করার জন্য তাদের প্রথমে অনুরোধ করা হলে তারা প্রশাসনের এক কর্মকর্তার নাম ভাঙ্গিয়ে অনুমতি আছে বলে জানান। তিনি আরও বলেন, আপনারা পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করলেও আমাদের কোন যায় আসে না। এছাড়া পাইথালী বাজারের উত্তর পাশের কামারবাড়ী মোড় টু ব্যাংদহা নতুন পিচের কার্পেটিং হওয়া সড়কের জন্য ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের চুক্তিতে শ্রীউলা ইউনিয়নের কলিমাখালি গ্রামের মৃত নূর আলী মোড়লের পুত্র শাহাজান আলী তার নিজস্ব ড্রেজার মেশিন দিয়ে বে-আইনি ভাবে উক্ত সড়কের পাশে গনেশ গাইনের বাড়ীর পাশের পুকুর থেকে অবৈধ্য ভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করছেন। এর ফলে হালকা থেকে মাঝারী ধরণের ভুমিকম্প হলেই যে কোন সময় ধ্বসে পড়তে পারে এসকল এলাকার পাকা স্থাপনা। এছাড়াও বুধহাটা ইউনিয়নের বেউলা গাজীর হাট থেকে পশ্চিমে বাঁকড়া সড়কের শেষের অংশে নতুন ইট ভাটা নির্মান ও জায়গা ভরাটের জন্য মৎস্য ঘের থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধ্য ভাবে ভূ-গর্ভ থেকে বালু উত্তোলন করছেন শাহাজান আলী। অপরদিকে, শোভনালী/নৈকাটি ব্রীজের এপ্রোজ সড়ক নির্মানের জন্য ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান ব্রীজের ৫০/১০০ফুট দূরে কয়েকটি ড্রেজার মেশিনে ভূ-গর্ভ থেকে বালু উত্তোলন করছেন। প্রকাশ্য বালু উত্তোলনের মাধ্যমে এলাকার মানুষের জানমাল ও জায়গা জমির ক্ষতি সাধিত হলেও তাদেরকে বালু উত্তোলন করা থেকে কোন রকম থামানো যাচ্ছেনা। আশাশুনি উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের প্রায় সকল এলাকায় ব্যক্তি পর্যায়ে পুকুর ভরাট, বসতবাড়ী ভরাট করে উচুকরণ, এলজিইডি সড়ক নির্মানে ও রাস্তার পাশের নিচু জায়গা ভরাট করতে একই ভাবে ভূ-গর্ভের বালু উত্তোলন করা হচ্ছে বলে বিভিন্ন সূত্রে জানাগেছে। এসকল কাজে পুকুর খাল-বিল অথবা মৎস্য ঘের কিংবা সমতল ভূমি থেকে ড্রেজার মেশিনে ভলগেট লাগিয়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এভাবে যদি বালু উত্তোলন চলতে থাকে তবে বাংলাদেশের মানচিত্র থেকে সাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি উপজেলা কোন একদিন বিলিন হয়ে যেতে পারে। বালু উত্তোলনের বিষয়ে জানতে চাইলে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এম এস মোস্তফা কামাল বলে, ভূ-গর্ভ থেকে বালু উত্তোলন করা বে-আইনি এবং শাস্তি যোগ্য অপরাধ। নির্ধারিত বালু মহাল ছাড়া যদি কেউ খাল-বিল, নদী, পুকুর বা সমতল স্থান থেকে ড্রেজার মেশিনে ভলগেট লাগিয়ে বালু উত্তোলন করে তবে তার বা তাদের বিরুদ্ধে অতি দ্রুত মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বালু উত্তোলনের সাথে যদি কোন সরকারী কর্মকর্তা জড়িত থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধেও আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।